Home / প্রধান খবর / দরিদ্রতা থামাতে পারেনি হবিগঞ্জের হেলালকে

দরিদ্রতা থামাতে পারেনি হবিগঞ্জের হেলালকে


Print Friendly, PDF & Email

Habiganj Helal Picআবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল, নিউজ হবিগঞ্জ।।

নিজের লেখাপড়ার খরচ, দুই বোনের লেখাপড়া তাদের ভরণ পোষণ। নিজের লেখাপড়া ও বোনদেরকে লেখাপড়ার জন্য গ্রাম থেকে শহরে আসেন হেলাল উদ্দিন। দরিদ্র বাবার একমাত্র ছেলে হেলাল। দরিদ্রতার অভাবে ভালো একটি কলেজে লেখাপড়া করতে পারেনি সে। ইচ্ছে ছিলো একটি ভালো ইউনিভার্সিটিতে পড়বে। কিন্তু তা আর সাহস করতে পারেনি। কারণ যার বাবার প্রতিমাসে এক হাজার টাকা দেয়ার সাধ্য ছিলো না সে কিভাবে একটি ভালো ইউনিভার্সিটিতে পড়বে। সে স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল।
শহরে একটি পত্রিকা অফিসে কাজ করে হেলাল মাত্র ২ হাজার টাকার বিনিময়ে। এ দুই হাজার টাকা দিয়ে কিভাবে নিজের লেখাপড়া ও বোনদের লেখাপড়াসহ তাদের ভরণ-পোষন করবে হেলাল। হঠাৎ ওয়েব সাইট ডিজাইন শিখার ইচ্ছে জাগল তার। কিন্তু পত্রিকা অফিসে কাজ করায় সরকারি ছুটি ব্যতিত আর কোন ছুটি ছিলোনা। তাছাড়া তার শহরে এমন কোন ইন্সস্টিটিউ ছিলোনা যেখানে তারা ওয়েব ডিজাইনের কাজ শিখায়। কি করা যায় হেলালকে তো কাজ শিখতেই হবে। রাত ২টা পর্যন্ত পত্রিকা অফিসে কাজ করে বাকি রাতটুকু ইন্টারনেটে ছুটাছুটি করতে থাকে কিছু শিখার জন্য। এক পর্যায়ে নিজে নিজেই ইন্টারনেটে বিভিন্ন টিউটরিয়াল পড়ে ওয়েব ডিজাইনের কিছু কাজ শিখে যায় হেলাল।  কিছু কাজ শিখার পরপরই সে ওয়েব ডিজাইনের একটি কাজ পেয়ে যায়। প্রথম অবস্থায় কাজ পেতে খুব কষ্ট হতো। কিন্তু কিছুদিন যাবার পর আস্তে আস্তে বেশ কয়েকটি কাজ পায় হেলাল।
দীর্ঘ সাড়ে ৩ বছর কাজ করার পর আজ পর্যন্ত ৫৫টির মতো ওয়েব সাইট তৈরী করে সফলতার দুয়ারে পৌছে সে। এখন তার ৪ থেকে ৫টি এমনকি কোন মাসে তার বেশিও কাজ পায় হেলাল। ওয়েব ডিজাইনের কাজ করে এখন হেলাল প্রতি মাসে আয় করছে করে প্রায় ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা।
শুধু তাই নয় এখন সে বাংলাদেশ ডাক ও টেলিযোগযোগ, তথ্য  ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের লার্নিং এন্ড আর্ণিং ডেভলাপমেন্ট প্রজেক্টে ওয়েব ডিজাইন ট্রেইনার হিসেবে কাজ করছে।
ঘরে বসেই আয়ের জাদুমন্ত্র পেয়ে গেলেন হেলাল। নিজের লেখাপড়া, বোনদের লেখাপড়া ও তাদের ভরণপোষণে তিনি আজ সফল। হেলাল উদ্দিন বলেন, আসলে মানুষ পারে না এমন কিছুই নেই। ইচ্ছে করলেই নিজেই তার জীবনকে উজ্জ্বল করতে পারে। দীর্ঘ সাড়ে ৩বছর কাজ করে আজ আমি একজন পরিপূর্ণ ওয়েব ডেভলপার। আর আমার কাজে অনুপ্রেরণ দিয়েছেন আমার মা-বাবা। হেলাল হবিগঞ্জ সরকারী বৃন্দাবন কলেজে বিএ ফাইনাল ইয়ারে পড়ছেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি তিনি হবিগঞ্জ শহরে একটি অফিস নিয়ে ওয়েব ডেভলাপমেন্টের কাজ পরিচালনা করে আসছেন। নিজের প্রতিষ্ঠিত ফার্মের নাম দিয়েছেন “হেলাল হোস্ট বিডি”।
হেলাল উদ্দিন ওয়েব ডিজাইনের ব্যাপারে খুবই আশাবাদী। তিনি বললেন, ‘বাইরে চাকরির পাওয়ার জন্য হন্যে হয়ে ঘুরার দরকার নেই। এখন চাইলে তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে প্রশিক্ষন নিয়ে ঘরে বসেই আয় করতে পারেন। আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে সে সুযোগ তৈরি হয়েছে। মোঃ হেলাল উদ্দিন জেলার চুনারুঘাট উপজেলার কেউন্দা গ্রামের মোঃ ফারুক পুত্র।

Share